Smart Pacemaker: ‘হার্ট ফেল’ রোধে আসছে স্মার্ট পেসমেকার

বিজ্ঞানের বিষ্ময়কর সাফল্যের ধারাবাহিকতায় ‘হার্ট ফেল’ রোধে এবার উদ্ভাবন করা হলো Smart Pacemaker। এটি ধীরে ধীরে মানবদেহে দ্রবীভূত হয়ে যাবে। অন্যদিকে এটি শরীর থেকে অপসারেণে কোন ধরনের কষ্ট করতে হবে না।

নর্থ ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয় এবং জর্জ ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা যৌথভাবে এই পেসমেকার আবিষ্কার করেন ২০২১ সালে। তখন এটিকে প্রথমবার জনসমক্ষে তুলে ধরে বিজ্ঞানীরা বলেছিলেন যে, এই ডিভাইসের সাহায্যে রোগীর হার্টবিট মনিটর করার পাশাপাশি রোগীর দেহের তাপমাত্রা-ও মাপা যাবে । এ গবেষণা দলের নেতৃত্বে দেন John A. RogersIgor R. Efimov এবং Rishi Arora.

বিজ্ঞানীরা দাবি করেন যে, তারা এটিকে প্রথমে ইঁদুর এবং কুকুরের দেহে পরীক্ষা করে সফলতা অর্জন করেন। তাই এবার তাদের লক্ষ্য মানবদেহ।

Smart Pacemaker এর বৈশিষ্ট

তারা আরো দাবি করেন যে, এই ডিভাইসটি ব্যবহার জন্য কোনও ব্যাটারি বা অন্য কিছুর প্রয়োজন নেই। তারা প্রাথমিকভাবে এই ডিভাইসটিকে হার্টের বাইরে স্থাপন করার জন্য ডিজাইন করেছেন। কিন্তু তারা এটি হার্টের ভেতরেও প্রতিস্থাপন করতে চান যাতে এই ডিভাইসটি নিরাপদে দ্রবীভূত হতে পারে। এই পেসমেকার ত্বকের ওয়্যারলেস সেন্সগুলির সঙ্গে যুক্ত করতে সক্ষম। যাতে প্রয়োজনমাফিক পেসিং অ্যাডজাস্ট করা যায়।  সব মিলিয়ে এই পেসমেকারকে তাই বলা হচ্ছে স্মার্ট পেসমেকার।

জানা যায়, এই পেসমেকারকে সম্পূর্ণ জৈব শোষণযোগ্য ডিভাইস হিসেবে ডিজাইন করা হয়েছে। পাশাপাশি এটি খুবই পাতলা একটি ডিভাইস। কার্যত যা পানিতে দ্রবণীয় ধাতু এবং সমগোত্রীয় আরও নানা উপাদান দিয়ে গঠিত। মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এই ডিভাইস আমাদের শরীরের জলভাগে দ্রবীভূত হয়ে যেতে পারবে।

১ thought on “Smart Pacemaker: ‘হার্ট ফেল’ রোধে আসছে স্মার্ট পেসমেকার”

Leave a Reply