ব্ল্যাক হোলে দানবের আর্তনাদ, হাড় হিম করা ভূতুড়ে শব্দ শুনুন

ব্ল্যাক হোলে দানবের আর্তনাদ! হাড় হিম করা ভূতুড়ে শব্দ। এ ধরনের শব্দ আজ পর্যন্ত কেউ শুনেনি। আমরা সবাই জানি যে মহাশূণ্যে কোন শব্দ নেই। এবার সেই ব্ল্যাক হোল থেকে বেরিয়ে আসা ভয়ঙ্কর ভূতুড়ে শব্দ শুনলে আপনার হাড় হিম হয়ে যেতে পারে। সম্প্রতি নাসা-র বিজ্ঞানীরা এমনই এক শব্দ শুনিয়েছে। ব্ল্যাক হোল থেকে ছুটে আসা চাপের তরঙ্গকে শব্দ তরঙ্গে পরিণত করে তা রেকর্ড করেছেন তারা।

মহাবিশ্বে এমন গহ্বর নিকষ কালো এবং এর আকর্ষণ ক্ষমতা এতটাই যে আলো পর্যন্ত এর মধ্য দিয়ে যেতে পারে না। ব্ল্যাক হোলের শূন্যতা শুষে নেয় আলোকেও।

তবে মহাশূন্যে কোনও শব্দ নেই। কারণ সেটা বায়ুশূন্য। আর বায়ুশূন্য স্থান দিয়ে শব্দ চলাচল করতে পারে না। তাহলে নাসা এই শব্দ রেকর্ড করলো কিভাবে? প্রশ্ন হতে পারে। নাসা জানিয়েছে, কৃষ্ণগহ্বর বা ব্ল্যাক হোল থেকে এক বিশেষ ধরনের তরঙ্গ বাইরের দিকে আসে। সেই তরঙ্গগুলিকে সংগ্রহ করা হয়েছে। সেই তরঙ্গের যে পরিসংখ্যান, সেটিকে ফেলা হয়েছে শব্দের নিরিখে। তার পরেই ব্ল্যাক হোলে দানবের আর্তনাদের মতো হাড় হিম করা ভূতুড়ে শব্দ পাওয়া গেছে । প্রকৃতপক্ষে ব্ল্যাক হোল ফেরত শব্দ এতই ক্ষীণ যে, তা মানুষের শ্রবণযোগ্য নয়। কিন্তু একটি গ্যালাক্সি ক্লাস্টারের মধ্যে গ্যালাক্সিগুলি গ্যাস নির্গমন করতে থাকে। এর ফলেই শব্দ চলাচলের একটি মাধ্যম তৈরি হয়। নাসা ব্ল্যাক হোলের যে শব্দ রিলিজ করেছে তা আসল শব্দের থেকে অনেক গুন বেশি।

Leave a Reply